কেন চীনে অধ্যয়ন করবেন?

 

Untitled-1চীন এখন উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করতে ইচ্ছুক বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের জন্য অন্যতম পছন্দের শিক্ষা গন্তব্যস্থলে পরিণত হয়েছে। চীনে বর্তমানে ২,000 বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ আছে এবং তালিকাভুক্ত শিক্ষা প্রতেষ্ঠানের সংখ্যা প্রায় ছয় মিলিয়ন।চীন ব্যাচেলার, মাস্টার্স এবং ডক্টরাল ডিগ্রী সহ একটি ডিগ্রী সিস্টেম সেট করেছে যা বিদেশী শিক্ষার্থীদের জন্য উন্মুক্ত। উপরন্তু, দেশটি কারিগরী প্রোগ্রামও অফার করে।

 

বেশিরভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ে খুব সকাল (সাধারণত সকাল ৮ টা) থেকে সন্ধ্যার পর (সাধারণত ১০টা) পর্যন্ত ক্লাস অনুষ্ঠিত হয়। প্রায় সব প্রতিষ্ঠান ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের জন্য খাদ্য এবং বোর্ডিং সুবিধা প্রদান করে।চীনের সাবেক প্রজন্মের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের তুলনায় বর্তমানের শিক্ষার্থীরা তাদের ক্যাম্পাসের ভেতরে এবং বাইরে বেশি স্বাধীনতা ও কার্যক্রমের বৈচিত্র্যতা উপভোগ করে।

 
পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় বিশেষ করে জাতীয় তুলনায় ভাল বলে মনে করা হয়। সাধারণত ন্যাশনাল উচ্চ শিক্ষা প্রবেশিকা পরীক্ষায় শিক্ষার্থীদের পারফরমেন্সের উপর ভিত্তি করে শিক্ষার্থী নির্বাচন করা হয়।তাছাড়া, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রয়োজনীয় প্রবেশ স্কোর বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের তুলনায় অনেক বেশী হয়। যাইহোক, চীনের প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলো সম্প্রতি বিশ্বের বিভিন্ন নামকরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মত উন্নতি করেছে, তাই শিক্ষার্থীরা প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে শিক্ষা ক্ষেত্রে তাদের পরবর্তি গন্তব্য হিসেবে বিবেচনা করছে।এই বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সুযোগ পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি এবং শিক্ষাগত দিক থেকে কম প্রতিযোগিতামূলক হিসেবে বিবেচনা করতে পারেন।

Share Button
পড়া হয়েছে 198 বার

Back to Top