মালয়েশিয়ায় স্টাডি এবং ওয়ার্ক পারমিট বা কাজের অনুমুতি

মালয়েশিয়ান সরকার বিদেশী ছাত্রদের স্বাগত জানানোর জন্য সহজ এবং ঝামেলা মুক্ত এন্ট্রি বা প্রবেশ পদ্ধতি চালু করেছে।যদিও ভিসার প্রয়োজন আছে তবুও পদ্ধতিটি খুবই সহজ, যেমনঃ ছাত্রদের মালয়েশিয়ায় প্রবেশের জন্য নিজস্ব দেশের মালয়েশিয়ান মিশন থেকে সরাসরি ভিসার জন্য আবেদন করার প্রয়োজন নেই পরিবর্তে মালয়েশিয়ায় প্রবেশের পর ইমিগ্রেশন চেক পয়েন্টে ভিসা ইস্যু করা হবে।

ছাত্র বা স্টুডেন্ট পাস আবেদন প্রক্রিয়া

ছাত্র পাস আবেদন প্রক্রিয়া খুব সহজ।মালয়েশিয়ার উচ্চতর শিক্ষার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যারা আন্তর্জাতিক ছাত্রদের তাদের প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নের জন্য প্রস্তাব দেয় তারাই ছাত্রদের পাসের জন্য আবেদন করে থাকে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে “পাস ও পারমিট বিভাগের পরিচালক” বরাবর আবেদন জমা দেয়া হয়।

ছাত্রদের এই পদ্ধতির অধীনে ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্টে সরাসরি আবেদন করার প্রয়োজন নেই। প্রত্যাশিত ছাত্রকে মালয়েশিয়ান ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্ট থেকে তাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে আবেদনের অবস্থা সম্পর্কে জানানো হবে। আবেদনের ৭ দিনের মধ্যে জানানো হবে আবেদন সফল হয়েছে কি হয় নি।
অতএব, মালয়েশিয়ায় কর্মপন্থা ঠিক করার আগে ছাত্রদের মালয়েশিয়ান দূতাবাস/কনস্যুলেট অফিস থেকে ভিসা/ছাত্র পাস জন্য আবেদন করার প্রয়োজন নেই। যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছাত্রদের নথিভুক্ত করবে তারাই ইমিগ্রেশন সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে দায়বদ্ধ।

ছাত্র পাস এবং ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার তারিখ মালয়েশিয়ায় আপনার থাকার অনুমতির নির্দিষ্ট সময় নির্দেশ করে। সাধারণত, ছাত্র পাসের মেয়াদ ১ বছরের কম বা বেশি থাকে, একক বা একাধিক ভিসা মেয়াদ সেই অনুযায়ী বাড়ানো হয়।

মালয়েশিয়ায় ছাত্র বা স্টুডেন্ট পাসের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্টের প্রয়োজন হয় সাত দিন।প্রয়োজনিয় কাগজপত্র নিম্নরূপ

• ছাত্রদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে একটি অফার লেটার বা প্রস্তাব চিঠি বা স্বীকৃতির চিঠি।

• ছাত্র পাস আবেদন ফরমের (IMM14) ডুবলিকেট বা নকল কপি।

• ছাত্র পাসপোর্ট / পর্যটন ডকুমেন্টের দুটি ফটোকপি।

• ছাত্রের ২ কপি পাসপোর্ট আকারের ছবি।

• শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছাত্রে পক্ষ থেকে একটি ‘ব্যক্তিগত বন্ড’ সাইন ইন করতে হবে। ব্যক্তিগত বন্ডের জন্য কোন ফি নেয়া হবে না।

ছাত্র পাস/ভিসার জন্য পেমেন্ট

মালয়েশিয়ার ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্ট সব ছাত্রদের কাছ থেকে “স্টুডেন্ট পাসের” জন্য প্রতি বছর RM ৬০(১৪২৬ টাকা) ফি নিবে। উপরন্তু, যেসব দেশ থেকে আসলে মালয়েশিয়ায় এন্ট্রি বা প্রবেশ ভিসার প্রয়োজন হয়,সেসব দেশের ছাত্রদের মালয়েশিয়ায় এন্ট্রি বা প্রবেশ ভিসার জন্য অর্থ পরিশোধ করতে হবে।
এন্ট্রি ভিসার ফি’র তারতম্য ঘটে। আরও তথ্যের জন্য আপনার দেশে মালয়েশিয়ার দূতাবাসের সাথে যোগাযোগ করুন।

মালয়েশিয়ায় ওয়ার্ক পারমিট বা কাজের অনুমতি

শুধুমাত্র সেমিস্টার বিরতি বা ৭ দিনের ছুটির সময় প্রতি সপ্তাহে সর্বোচ্চ ২০ ঘন্টার জন্য ছাত্রদের কাজ করার অনুমতি দেওয়া হয়।যতদিন ‘ছাত্র পাসের’ বৈধতা থাকে ততদিন রেস্টুরেন্ট, পেট্রোল পাম্প, টেলিফোন ঘর,মিনি মার্কেটস এবং হোটেলে কাজ করা যায়। ক্যাশিয়ার হিসেবে ছাত্রদের কাজ করার অনুমতি দেওয়া হয় না। উপরন্তু, ছাত্ররা হোটেল বিভাগের গায়ক, সংবাহক, সুরকার, জি.আর.ও (GRO) এবং মালয়েশিয়ান আইন অনুযায়ী অনৈতিক বিবেচনা করা হয় এমন কোন কাজ করতে পারবে না। ছাত্ররা যে প্রতিষ্ঠানে পড়াশোনা করছে তার মাধ্যমে খন্ড-কালিন কাজের জন্য আবেদন করতে হবে।

মালয়েশিয়ায় ওয়ার্ক পারমিটের জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস

নিম্নলিখিত কাগজপত্র প্রয়োজন হয়
• ভিসা আবেদন ফরম সম্পূর্ণরূপে এবং যথাযথভাবে আবেদনকারী দ্বারা স্বাক্ষরিত হতে হবে।

• আবেদনকারী মালয়েশিয়া প্রবেশের দিন থেকে অন্তত ৯ মাসের জন্য বৈধ পাসপোর্ট থাকতে হবে।

• সাদা ব্যাকগ্রাউন্ডের দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের সাম্প্রতিক ফটোগ্রাফ (৩৫ মিমি প্রস্থ × ৪৫ মিমি উচ্চতা) আবেদন ফরমের সাথে স্ট্যাপল করতে হবে না।

• ভ্রমণের উদ্দেশ্য জানিয়ে আবেদনকারী থেকে চিঠি টাইপ করে পাঠাতে হবে।

• মালয়েশিয়ার কোম্পানী/প্রতিষ্ঠান থেকে চিঠি।

• মালয়েশিয়ার ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্ট থেকে ওয়ার্ক পারমিটের অনুমোদন ফরম(মূলকপি)।

এই অনুমোদন কপি একটি সিলকরা খামে থাকবে এবং আবেদনকারী দ্বারা খোলা যাবে না।

• এয়ার টিকেট নিশ্চিত করুন।

• মালয়েশিয়ার ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্ট থেকে VDR অনুমোদন পত্রে মূল কপি।

• একটি এন্ট্রি বা প্রবেশ ভিসা ইস্যু করা হয়, এবং মালয়েশিয়ায় প্রবেশের সময় থাকার সময় মঞ্জুর করা হয়।

Share Button
পড়া হয়েছে 3,084 বার

Back to Top