UK-তে ছাত্র ভিসার জন্য আবেদন প্রক্রিয়া

Untitled-1যুক্তরাজ্য সবসময়ই তার উচ্চ মানের শিক্ষাদানের জন্য সারা বিশ্ব জুড়ে শিক্ষার্থীদের আকৃষ্ট করে আসছে। একজন আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী হিসাবে UK তে একটি শিক্ষার কোর্স করার পরিকল্পনা থাকলে, ঐ দেশে থাকার জন্য ভিসা অর্জন করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের UK ছাত্র ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে যা তাদের শিক্ষা সময়কাল এবং বয়সের উপর নির্ভরশীল।যেসকল শিক্ষার্থী স্নাতক / স্নাতকোত্তর / ডক্টরেট প্রোগ্রামের জন্য আবেদন করতে চান তাদের টিয়ার ৪ (সাধারণ) ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে।

প্রয়োজনীয় যোগ্যতা

UK বর্ডার এজেন্সি অভিবাসন ও ভিসা অ্যাপ্লিকেশনের সাথে সম্পর্কিত সমস্ত পদ্ধতি পরিচালনা করে। শিক্ষা ভিসা পেতে সমস্ত সম্ভাব্য আবেদনকারীদের একটি পয়েন্ট ভিত্তিক সিস্টেম পূর্ণ করতে হবে। টিয়ার ৪ ভিসা পাবার জন্য একজনকে আবশ্যই ৪০ পয়েন্ট পেতে হবে। এর জন্য আপনাকে আপনি যে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার জন্য আবেদন করবেন সেখান থেকে একটি নিশ্চিতকরণ চিঠি বা শিক্ষার গ্রহণের নিশ্চিতকরণ(সি এ এস) পেতে হবে। সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়টি UK বর্ডার এজেন্সি দ্বারা স্বীকৃত হতে হবে।একটি আদর্শ সি এ এস বিবৃতিতে নিম্নলিখিত তথ্য থাকতে হবে:

•একটি ১৪অঙ্কের রেফারেন্স নম্বর,যা ভিসা আবেদন ফর্মে ব্যবহার করা হবে।

• আপনি যে প্রতিষ্ঠানে পড়তে যাবেন তার স্পনসর লাইসেন্স নম্বর।

• কোর্স বিবরণ যেমন কোর্স শুরুর তারিখ, কোর্সের শিরোনাম,টিউশন ফি, বাসস্থান ফি ।

•যোগ্যতার বিবরণ যার উপর ভিত্তি করে কোর্সের সুযোগ দেয়া হয়েছে।

এছাড়াও, এটি অপরিহার্য যে এখানে আপনার টিউশন ফি এবং জীবনযাত্রার ব্যয়ের অর্থায়ন ফান্ড(স্পনসর) সম্পর্কে তথ্য দেয়া থাকবে।

প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস

আবেদন সংযুক্ত প্রতিটি নথিতে অবশ্যই মূল নথি এবং একটি ফটোকপি অন্তর্ভুক্ত করতে হবে । আপনাকে আবেদন করার সময় নিম্নলিখিত কাগজপত্র প্রদান করতে হবে :

• পাসপোর্টের একটি কপি।

• সম্পন্ন করা ভিসার আবেদন একটি স্বাক্ষরিত কপি। টিয়ার ৪(সাধারণ) ভিসার জন্য, টিয়ার ৪-এ সংযোজিত ৮ ফরম ব্যবহার করুন।

• এককপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি (রঙিন)।দয়া করে UK বর্ডার এজেন্সির অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে ছবির নির্দেশিকা পড়ুন ।

• যোগ্যতা: আপনাকে মূল মার্ক শীট / সার্টিফিকেট বা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক তালিকাভুক্ত ট্রান্সক্রিপ্ট যা সি এ এস প্রদান করে তা জমা দিতে হবে। এছাড়াও, সি এ এস বিবৃতি আপনার ইংরেজি ভাষা দক্ষতার মূল্যায়ন অন্তর্ভুক্ত করবে।

• সি এ এস ছাড়া,আপনাকে আর্থিক সামর্থ্য প্রমানের জন্য একটি নথি জমা দিতে হবে। যদি আপনার অফিসিয়াল আর্থিক পৃষ্ঠপোষক থাকে (UK সরকার বা আপনার দেশের সরকার,ব্রিটিশ কাউন্সিল অথবা অন্য কোন প্রতিষ্ঠানের),অন্যথায় আপনার টিউশন ফি,আনুসাঙ্গিক খরচ ইত্যাদি ব্যয় বহন করার জন্য একজন আর্থিক পৃষ্ঠপোষকের বিস্তারিতসহ একটি নথি প্রদান করতে হবে।

• দেশ হতে অনুমতি প্রাপ্তির প্রমান।

•.পূর্ববর্তী পাসপোর্ট এর ক্ষেত্রে, আগের ভ্রমণের প্রমাণ প্রদান।

সমস্ত নথি অবশ্যই ইংরেজিতে হতে হবে। যদি নথি অন্য ভাষায় হয়, তবে আপনাকে এটি অনুবাদ কর নিতে হবে। ভিসা আবেদন ফরমে সঠিক তথ্য প্রদান করা উচিত।তা না হলে,আবেদন প্রত্যাখ্যান হতে পারে। আবেদনকারীদের মনে রাখা উচিত টিয়ার ৪ পয়েন্ট ভিত্তিক সিস্টেমের অধীনে স্কোর করতে তাদের প্রমাণ হিসেবে সি এ এস নম্বর প্রদান করতে হবে।

কখন আপনাকে আবেদন করতে হবে?

আপনার কোর্স আরম্ভের তারিখের তিন মাস পূর্বে আপনাকে ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। ছাত্রদের মনে রাখতে হবে সি এ এস বিবৃতি মাত্র ছয় মাসের জন্য বৈধ। অতএব, সি এ এস জারির ছয় মাস পরে আবেদন করা উচিত নয়।

কিভাবে আবেদন করতে হবে?

আপনি www.visa4uk.fco.gov.uk অনলাইনে আপনার ভিসা আবেদন ফরম জমা দিতে পারেন।
আপনাকে অনলাইনে ভিসা আবেদন ফরম পূরণ করতে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে। আপনি অনলাইনে ফরম পূরণ এবং জমা দেয়ার পর, আপনাকে সম্পন্ন আবেদন ফরমের একটি হার্ড কপি প্রস্তুত করতে হবে। আবেদনকারীরা অনলাইন ক্যালেন্ডারে ব্যবহার করে অবশ্যই ভিসা আবেদন কেন্দ্রে একটি অ্যাপয়েন্টমেন্ট বুক করবেন । দয়া করে মনে রাখবেন অনলাইনে আবেদন ফরম জমা দেওয়ার তারিখ থেকে ৯0 দিন পরে অ্যাপয়েন্টমেন্ট করা যাবে না।

আবেদন ফি

টিয়ার-৪ এর অধীনে ভিসা আবেদন ফি tk. ৪১,৮৫০ বা £ ৩২৯।

আপনি এই মোডগুলোর যেকোনো একটির মাধ্যমে পেমেন্ট করতে পারেন:

• একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক বা বিদেশী ব্যাংক থেকে ডিমান্ড ড্রাফট; ডিমান্ড ড্রাফট ‘ব্রিটিশ হাই কমিশন’ এর পক্ষে তৈরি করা আবশ্যক। কেন্দ্রে আবেদন জমা দেওয়ার সময় আপনার সাথে ডিমান্ড ড্রাফট থাকতে হবে। ব্যাংক সেবা চার্জ পরিবর্তিত হবে।

• স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক এ পেমেন্ট; আপনি স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের কিছু শাখায় এ পেমেন্ট করতে পারবেন। এই সেবা বিনামূল্যে দেয়া হবে।

• ভিসা আবেদন কেন্দ্রে পেমেন্ট; আপনি কেন্দ্রে যাবেন এবং কেন্দ্রে অবস্থিত স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকে ফি পরিশোধ করতে পারবেন।

• অনলাইনে পেমেন্ট; আপনি একটি ভিসা বা মাস্টারকার্ড ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ড ব্যবহার করে আবেদন ফি অনলাইনে পেমেন্ট করতে পারেন।

ভিসা আবেদন কেন্দ্র

ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া করা হবে না আপনার বায়োমেট্রিক তথ্য প্রদান ছাড়া অর্থাৎ আপনার মুখের ছবি এবং ফিঙ্গারপ্রিন্ট । আপনাকে অবশ্যই আবেদন এবং বায়োমেট্রিক তথ্য জমা দিতে নিকটস্থ UK দূতাবাসের ভিসা আবেদন কেন্দ্রে একটি এপয়েন্টমেন্ট নিতে হবে।

আবেদনকারীদের মনে রাখতে হবে যে, আপনার বায়োমেট্রিক তথ্য নথিভুক্ত করতে তারা আঙ্গুলের ছাপ নথিভুক্ত করতে পারেন, তাই আঙ্গুলে কাটা বা ক্ষতিগ্রস্ত বা কোনো অস্থায়ী প্রসাধন করা থাকলে(যেমন মেহেদি ) তাদের জানাতে হবে ।

Share Button
পড়া হয়েছে 233 বার

Back to Top